এবার বি‘কি‘নি‘তে নয়, উন্মুক্ত স্ত‘নে বড়দিন উৎযাপন উরফির, মূহুর্তেই ভিডিও ভাইরাল

জুসের বদলে গ্লাসে জল থাকলেই বিপদে পড়তেন উরফি! খাবার দিয়ে লজ্জা নিবারণ করে আবার এক চমক-ভিডিয়ো নিয়ে এলেন তারকা।

দিওয়ালির পর ক্রিসমাস। হাতে খাবার নিলেই উত্তেজিত হয়ে ওঠে মন? উৎসবের আমেজে আবারও ‘মায়াবী’ হয়ে উঠলেন উরফি জাভেদ। আবছা আলোয় শুধু স্কার্ট পরেই ক্যামেরার সামনে। ঊর্ধ্বাঙ্গে সুতোটিও নেই।

খোলা বুকে লাড্ডু হাতে দিওয়ালির শুভেচ্ছা জানানো উরফি বড়দিনে কী করলেন? খুব বেশি কিছু না, চিরে ফালাফালা করা সান্টার পোশাকে বরফ-ঢাকা রাস্তায় নাচতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। কিন্তু আসল চমক বাকি ছিল।

ক্রিসমাসের দু’দিন পর, মঙ্গলবার ফের খাবার হাতে হাজির মডেল-তারকা। ডান হাতে প্লেটের উপর প্যানকেক। ক্রিমের ফাঁকে স্ট্রবেরি আর ব্লুবেরির সাজ। আর বাঁ হাতে ধরা জুসের গ্লাস। সেগুলির আড়ালেই ঢাকা পড়েছে উরফির বক্ষসম্পদ!

উরফির গলায় আকর্ষণীয় এক নেকলেস। যাতে রং মিলিয়ে রয়েছে লাল, সাদা আর কালো ফুল। হাতে ধরা সাদা প্লেট আর স্কার্টের কালো রঙের সঙ্গে দিব্যি মানিয়েছে সেই সাজ। হলুদ আলোর সঙ্গেও ভারসাম্য রেখেছে হাতে জুসের রং।

উরফির নতুন ভিডিয়োতেও ভুল ধরার জো নেই! অনেকে বলাবলি করছেন, জুস গাঢ় এবং রঙিন বলেই লজ্জা নিবারণ হল এ যাত্রায়। তবে, শোরগোল পড়ল ক্যাপশনে। উরফি লিখেছেন, ‘ব্রেকফাস্ট!’

“মানে? বেলা বারোটায় কে প্রাতরাশ করে?” মন্তব্য ভেসে এল সেই ভিডিয়োর নীচে। কেউ আবার হাসিতে ফেটে পড়ে লিখলেন, “জুসের বদলে গ্লাসে যদি জল থাকত? সব দেখা যেত তো!” তবে অনেকেই আতঙ্কের স্বরে বললেন, “এটা শীতকাল না? ঠান্ডা লাগে না ওঁর?” ভিডিয়োটি অবশ্য নিমেষে ভাইরাল।

দিওয়ালিতে এমনই রং মিলিয়ে ঘরে বসে লাড্ডু হাতে ভিডিয়ো পোস্ট করেছিলেন ‘ফ্যাশনিস্তা’। সেই লাড্ডুতেই ছিল বক্ষদেশ আড়াল করার ব্যবস্থা। নতুন বছরে আবার কী চমক নিয়ে আসেন অভিনেত্রী, তারই অপেক্ষা!

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.