যে অপ’রাধে গ্রে’ফ’তার রিয়া,সেখান থেকে সুশা’ন্তর অপ’রাধে তো আরো বড়!!! প্রশ্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়

রিয়ার গ্রেফ’তারের পরেই কিছু প্রশ্ন সোশ্যাল মিডিয়ার ঘুরপাক খেতে শুরু করেছে। রিয়ার বিরুদ্ধে সুশান্তের পরিবারের অভি’যোগ কী ছিল? অভিনেতাকে খুন ও টাকা হাতানোর অভিযোগ থাকলে মাদকযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা হল কেন? বলিউডের যে ‘এ’-লিস্টাররা মাদক নেন তাঁদের কেন গ্রেফতার করা হয়নি? তবে রিয়া কি ‘সফট টার্গেট’? মেয়ে বলে তাঁকে হেনস্থা করা কি সহজ? সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ড করতে শুরু করে #জাস্টিসফররিয়া।

অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর একটি ছবি পোস্ট করেন টুইটারে। সঞ্জয় দত্ত ও সলমন খানের বেলায় পুলিশ ও মিডিয়ার ব্যবহারের সঙ্গে তুলনা টেনে আনেন রিয়ার প্রতি তাঁদের আচরণের। লিঙ্গ বৈষম্যের ছবিটাই যেন আরও স্পষ্ট ভাবে তুলে ধরতে চাইছিলেন তিনি।

ইতিমধ্যেই বলিউডের বেশ কয়েকটি বড় নাম দাঁড়ালেন অভিনেত্রীর পাশে। গলা তুললেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। জানিয়ে দিলেন, রিয়ার সঙ্গে আছেন তাঁরা। বিতর্কের আগুনে আরও একটু ঘি ঢেলে দিলেন তাপসী পান্নু। টুইটে অভিনেত্রী ক্ষোভ উগরে দিয়ে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিলেন, ‘‘সুশান্তকে দেওয়ার জন্যই রিয়া মাদক সংগ্রহ করেছিলেন। তা হলে সুশান্ত বেঁচে থাকলে তাঁকেও কি গ্রেফতার করা হত?’’

তাপসী একাই নন, পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ, দিয়া মির্জা, সোনম কপূর, করিনা কপূরের মতো তারকারাও নিঃশব্দ প্রতিবাদ জানান। প্রত্যেকের সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে দেখা যাচ্ছে চারটি বাক্য। একটি প্রতিজ্ঞা।

সমাজের পুরুষতান্ত্রিকতাকে ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়ার প্রতিজ্ঞা। এই শব্দগুলোই গ্রেফতার হওয়ার আগে এনসিবি অফিসের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা রিয়ার টি-শার্টে দেখা গিয়েছিল। রিয়ার মনের ইচ্ছেকেই যেন এ বার পূরণ করার লড়াইয়ে নেমেছেন তাঁর সহকর্মীরা।

অন্য দিকে, সুশান্তের দিদি শ্বেতা সিংহ কীর্তিও নেহাতই চুপ নন। রিয়া গ্রেফতার হওয়ায় খুশি তিনি। যদিও অভিনেত্রীর প্রতি বলিউড তারকাদের সমবেদনা মেনে নিতে পারছেন না সুশান্তের দিদি। তাঁদের খোঁচা দিয়েই ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট করেন তিনি। ঠিক চারটি বাক্য লেখা আছে সেখানেও। কিন্তু তাঁর প্রতিজ্ঞা ভিন্ন। ভাইয়ের জন্য সুবিচার আদায় করে নেওয়ার জেদ জ্বলজ্বল করছে সেই পোস্টে।

আরও পড়ুন: সরানো হল বাইকুল্লা জেলে, আজ ফের জামিনের আবেদন করবেন রিয়া

দু’সপ্তাহের জন্য রিয়ার ঠিকানা আপাতত বাইকুল্লা জেল। বাড়ি থেকে জামাকপড় নিয়ে যাওয়া হলেও অভিনেত্রী তা নিতে অস্বীকার করেন। মেলেনি বাড়ির লোকের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি। সামনের পথ কি আরও কঠিন? উত্তর দেওয়ার সময় আসেনি এখনও।

তিন দিন টানা জেরার পর মঙ্গলবার মাদকযোগে রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। মঙ্গলবারই এক দফা জামিনের আর্জি খারিজ হয়েছে অভিনেত্রীর। আপাতত ১৪ দিনের জন্য বিচাবিভাগীয় হেফাজতে রাখা হয়েছে তাঁকে। অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে মাদক কেনা ও তা সুশান্তকে সরবরাহ করার অভিযোগ প্রমাণিত হলে ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে রিয়ার।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.