রাজ্য সরকার ইমামদের দিচ্ছে ২৫০০ টাকা, অথচ পুরোহিতদের মাত্র ১০০০ টাকা? কেন এই বৈষম্য? প্রশ্ন শুভেন্দুর

ইমাম ভাতা ইস্যুতে এবার সবর হলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। তুললেন ধর্মীয় মেরুকরণের অভিযোগ। তাঁর দাবি, ২০১৯ সালে সংখ্যালঘু ভোট পেতে দরাজ হয়েছিলেন মমতা। ধর্মীয় মেরুকরণ কাকে বলে দেখিয়েছিলেন তিনি। ফের ২০২১ এর বিধানসভা ভোটের আগে ফের ধর্মীয় মেরুকরণের রাজনীতি দেখা যাবৈ।

শুভেন্দু অধিকারী বলেন, রাজ্যের ৮ হাজার পুরোহিত মাসে ১০০০ টাকা করে ভাতা পান। অথচ ৬০ হাজার ইমাম মাসে ২৫০০ টাকা করে ভাতা পান। কেন এই বৈষম্য? এরপরেও ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। আমি ইমাম ভাতা কমানোর কথা বলছি না। তবে পুরোহিতদের ভাতা বাড়িয়ে দিন। সবাইকে তো সমান দেওয়া উচিত।

শুভেন্দু অধিকারী আরও বলেন, তিনি হিন্দু ব্রাহ্মণ পরিবারের সন্তান। প্রত্যেক ধর্মের প্রতি আস্থাশীল। মাস কয়েক আগে বাংলার পুরোহিতদের ১০০০ টাকা ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে ইমাম-মোয়াজ্জেনদের সঙ্গে পুরোহিত ভাতার বিস্তর ফারাক রয়েছে। ইমাম ভাতা মাসে ২৫০০ টাকা অথচ পুরোহিত ভাতা মাত্র ১০০০ টাকা। কেন এই বৈষম্য? প্রশ্ন তোলেন শুভেন্দু অধিকারী।

শুভেন্দুর দাবি, সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী, ইমামরা রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা না হলেও চলবে। মানে রোহিঙ্গা কিংবা বাংলাদেশি হলেও চলবে। অন্যদিকে, পুরোহিত ভাতা পেতে গেলে রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে। আধার কার্ড দেখাতে হবে। ৮০০০ পুরোহিত মাসে ১০০০ টাকা করে ভাতা পাচ্ছেন। অথচ ৬০ হাজার ইমাম-মোয়াজ্জেনরা ২৫০০ করে পাচ্ছেন। এরপরও ন্যায়বিচার, সুবিচার, ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলবেন?

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.